জগন্নাথ ঘাটের কবিতা/তমাল সাহা

দু বছর আগের একটি আঞ্চলিক ঘটনা।
হালিশহর কোনা অঞ্চলে জগন্নাথ ঘাট।
ভাগীরথী তীরে বোমা বিস্ফোরণে নিহত এক শিশু, দুইজন নিখোঁজ–২৭ জানুয়ারি, ২০২২

জগন্নাথ ঘাটের কবিতা
তমাল সাহা

শিরোনামে কবিতা লেখা থাকলেও
এটা কোনো কবিতা নয়।
এটা মৃত্যুর শব্দসজ্জা— জগন্নাথ ঘাটে গিয়ে
এই দৃশ্যের সঙ্গে প্রত্যক্ষ পরিচয়।

হালিশহর ভাগীরথীর তীরে এই ঘাট।
বোমার সঙ্গে কথা বলি
ভুল হয়ে গেছে বোমা নয়,
বোমার স্প্লিন্টারের সঙ্গে কথা হলো।
স্প্লিন্টার হাতজোড় করে বলে,
আমার কি দোষ বলো,
বোমা তো বিস্ফোরিতই হয়—
প্রাণ নেওয়াই তো বোমার কাজ
এটা নিশ্চয়ই কোনো অপরাধ নয়।

দারুণভাবে নিয়েছি জীবন
আমাকে কেন নিন্দামন্দ এখন!
শিশুদেহটি বিস্ফোরণে
প্রায় কুড়ি ফুট উঁচুতে উঠে যায়
তারপর মাটিতে এসে পড়ে।
এর চেয়ে বেশি নৈপুণ্য ছিল না আমার ক্ষমতায়।

আর নিখোঁজ দুটি ছেলে
বোমা বিধস্ত, বিস্ফোরণের তীব্রতায়
ছিটকে ভেসে গেল ভাগীরথীর জলে।

শিশু মরলে মায়ের চোখে জল গড়াবে—
এ নতুন খবর কি আর !
বোমা চিরকালই বিস্ফোরণ ঘটায়
এটা তো জানা সবার।

এতো নিশ্চিত, এটা না হলো পদ্য, না হলো কবিতা
বোমা ও শিশু নিয়ে তুমি যে কি লেখো, যা তা!