৭০০ টাকা দিলেই মিলবে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড! দাঁড়াতে হবে না কোন লাইনে! মানিকচকে সক্রিয় দালাল চক্র!!!

অবতক খবর,৮ ফেব্রুয়ারি: ৭০০ টাকা দিলেই মিলবে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড। কার্ডের ছবি তোলার জন্য কোন লাইনও দিতে হবে না। দালালচক্র সক্রিয় মানিকচকে। তাও আবার একেবারে ব্লক অফিস চত্বরে। এমনই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক শোরগোল পর এলাকায়। স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করতে এসে খালি হাতেই ফিরে যেতে হয় অনেক উপভোক্তাকে। তাদের দাবি দালালদের ৭০০ টাকা দিলেই তারা হাতে পেতো স্বাস্থ্য সাথী কার্ড। তবে এই বিষয়ে তেমন কোন হেলদোল নেই প্রশাসনের। ঘটনাটি কানে শুনলেও লিখিত অভিযোগ না হওয়ায় কোন রকম পদক্ষেপ গ্রহণই করেন নি ব্লক প্রশাসন।

ঘটনা সম্পর্কে জানাগেছে,বিগত দুইদিন ধরে মানিকচক ব্লক কমিউনিটি হলে ব্লক প্রশাসনের উদ্যোগের স্বাস্থ্য সাথী কার্ড প্রদান শিবিরের আয়োজন করা হয়।এদিন এই শিবিরে ধরমপুর, নূরপুর ও মানিকচক অঞ্চলের বেশ কিছু বাসিন্দা কার্ড করতে আসলে তাদের আবেদনের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে বলে শিবির থেকে ঘুরিয়ে দেওয়া হয়। তবে এই শিবির থেকে বেরোতেই বেশ কিছু দালাল তাদের দেখতে পেয়ে বলে ৭০০ টাকা দিলেই তাদের তৎক্ষণাৎ স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করে দেওয়া হবে। রীতিমতো হতভম্ব হয়ে পড়েন উপভোক্তারা। পরবর্তীতে এই ঘটনা জানাজানি হতেই সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের দেখে সেখান থেকে চম্পট দেয় দালালরা। স্বাস্থ্য সাথী কার্ড তৈরিতে ব্লক অফিস চত্বরে যে দালাল চক্র সক্রিয় সেই বিষয়ে তারা স্পষ্ট দাবি জানিয়েছেন।
নুপুরের গৃহবধূ আশা খাতুন বলেন, আমরা সকাল থেকেই স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে আছি।কিন্তু আমাদের আবেদনের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে বলে আমাদের ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হয়।কিন্তু ব্লক চত্বরে থাকা দালালেরা বলেন টাকা দিলেই সব ঠিক হয়ে যাবে।৭০০ টাকা দিলেই হবে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড। কিন্তু আমাদের কাছে টাকা না থাকায় আমরা কার্ড করতে পারলাম না।