ব্যারাকপুরে টিকিট পাচ্ছেন অর্জুনইঃএই প্রথম আইপ্যাকের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক

অবতক খবর,১৭ জানুয়ারি: বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্র সবসময়ই চর্চায় ছিল এবং আছে। কিছুদিন আগেই সাংসদ-বিধায়কের অভিযোগ পাল্টা অভিযোগে সরগরম ছিল ব্যারাকপুর। তবে সেই খেলায় রাশ টানেন দলের উচ্চ নেতৃত্বরা। আপাতত নির্দেশমত মুখে কুলুপ এঁটেছেন দুজনেই। তবে এই ঘটনায় মানুষের কাছে একটা বিষয় পরিষ্কার হয়ে গেছে যে,ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে একটি বড় অংশ অর্জুন বিরোধী। তবে সেসব কিছুকে পরোয়াই করছেন না অর্জুন। মহাভারতের অর্জুনের মতো তিনি নিজের কাজ করে চলেছেন। তিনি নাকি সবসময়ই ইলেকশন মোডে থাকেন,একথা নিজ মুখেই স্বীকার করেছেন অর্জুন।

দোড়গোড়ায় লোকসভা নির্বাচন এবং চর্চায় ব্যারাকপুর। বিগত লোকসভায় বিজেপির টিকিটে জয়ী হয়েছিলেন অর্জুন। পরবর্তীতে দিদির এক কথায় দলে ফিরে এসেছেন। এই কথাটিও তিনি নিজেই বলেছেন কিছুদিন আগে। তবে এবার? এবার ব্যারাকপুর থেকে দাঁড়াচ্ছেন কে? অর্জুন পন্থীরা বলছেন,টিকিট তো দাদাই পাবেন।

ওদিকে অর্জুন বিরোধীরা বলছেন, কে অর্জুন! ওঁকে দল টিকিট দেবে না।

তবে কিছুদিন আগেই ৪২টি লোকসভা কেন্দ্রের সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। বাট নট লিস্ট!

সকলের চোখে ফাঁকি দিয়ে ১৬ জানুয়ারি অর্জুন চলে যান আইপ্যাক দপ্তরে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আইপ্যাকের সঙ্গে তৃণমূলের চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার পর এই প্রথম অর্জুন-আইপ্যাকের বৈঠক হলো। কারণ চুক্তি স্বাক্ষরের সময় অর্জুন ছিলেন বিজেপিতে। তাই এই প্রথম বৈঠক, ইজ ইকুয়ালস্ টু লোকসভার টিকিট,তাতে শিলমোহর দিচ্ছেন অর্জুন পন্থীরা।

সূত্রের খবর,এই রাজ্যে ভোটকুশলী সংস্থা তথা আইপ্যাকের দায়িত্বে থাকা প্রতীক জৈনের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক হয় তাঁর।

তবে কি টিকিট পেয়ে গেলেন অর্জুন!