পারিবারিক একটি বিবাদকে কেন্দ্র করে দাদা ও বৌদির মাথায় বটির কোপ মারার অভিযোগ এক সিভিক ভলেন্টিয়ারের বিরুদ্ধে মন্তেশ্বরে

অবতক খবর,৩১ ডিসেম্বর, জ্যোতির্ময় মন্ডল পূর্ব বর্ধমান:পারিবারিক একটি বিবাদকে কেন্দ্র করে দাদা ও বৌদিকে বঁটির কোপ মারার অভিযোগ মন্তেশ্বরের এক সিভিক ভলেন্টিয়ারের বিরুদ্ধে। রবিবার সকালে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে মন্তেশ্বর ব্লকের কুসুমগ্রাম পঞ্চায়েতের সিংহালি গ্রামে। অভিযুক্ত সিভিক ভলেন্টিয়ারের নাম তরুন হাজরা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে বিগত বছরখানেক ধরে মৃনাল হাজরার সাথে জায়গা সংক্রান্ত বিবাদ রয়েছে তরুনের। রবিবার সকালে যাতায়াতের রাস্তায় জল ফেলাকে কেন্দ্র করে দাদা বৌদির সাথে এক অশান্তি শুরু হয় তরুনের। সে সময় খর কাটার বটি দিয়ে দাদা ও বৌদির উপর চড়াও হয় তরুণ বলে অভিযোগ। বটির আঘাতে বৌদি শ্রীমতি হাজরা মাথায় চোট পড়ে, আঘাত লাগে দাদা, মৃনালের কপালেও। দুজনকেই গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে মন্তেশ্বর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয় আঘাত গুরুতর থাকায় তাদের বর্ধমান হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছে তারা। খবর পেয়েই মন্তেশ্বর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এবং বৌদির বাপের বাড়ির পরিবারের পক্ষ থেকে মন্তেশ্বর থানায় অভিযোগ জানানো হয়। অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্ত সিভিক ভলেন্টিয়ার তরুণ হাজরা কে গ্রেপ্তার করে মন্তেশ্বর থানার পুলিশ। পুলিশ জানান ধৃতের বিরুদ্ধে নির্ধারিত ধারায় কেস রুজু হয়েছে এবং তাকে দুপুরে কালনা মহকুমায আদালতে পাঠান মন্তেশ্বর থানার পুলিশ ।।