এই সময় ও রবীন্দ্রনাথ/তমাল সাহা

এই সময় ও রবীন্দ্রনাথ
তমাল সাহা

১) রবীন্দ্রনাথের প্রয়োজনীয়তা

বাঙালি তুমি আমি
দেখো রবীন্দ্রনাথ কত দামি!
ট্রাফিক সিগনালে রবীন্দ্রনাথ।
হকের দাবির মিছিল—
প্রতিবাদীদের সোচ্চার স্লোগান।
দাবিয়ে রাখতে চায় শাসক
বাজায় রবীন্দ্রনাথের গান।

রবীন্দ্রনাথও কোনোদিন করেছিল মিছিল
গেয়েছিল রাখিবন্ধনের গান।
পঁচিশে বৈশাখের আগে মাইকে মাইকে ছয়লাপ
রাস্তায় কানফাটা স্বরে বাজে রবির সুর ও তান
অযাচিতভাবে রবীন্দ্রনাথকে ডেকে অপমান!

ঋষিকল্প রবীন্দ্রনাথকে এমন হেলাফেলা করো?
বাঙালি! তুমি মরো, মরো!

২) প্রাপ্তিস্থানঃ শান্তিনিকেতন

ভেবেছিলাম লোকগুলি মরে গেছে অথবা
মিসিং-নিরুদ্দেশ
এখন দেখি বেঁচেবর্তে আছে বেশ!

লোকগুলি নাকি বুদ্ধিজীবী!
মুখগুলি ভেসে ওঠে শান্তিনিকেতনের বাগানে।
বেশিরভাগ লোকই কলকাতায় থাকে
তাদের কখনো দেখিনি
হাঁসখালি বগটুই কালিয়াগঞ্জ কালিয়াচকের ময়দানে অথবা কলকাতার অবস্থানে
যেখানে ন্যায্য দাবিতে প্রজন্মেরা লড়াই করে— জল-বৃষ্টিতে ভেজে, ঘামে রোদপোড়া আগুনে!

আমি নিতান্তই নির্বোধ বুদ্ধিহীন।
তবে জানি,
বুদ্ধিজীবী বানান ও উচ্চারণ খুবই কঠিন।