আসানসোল লোকসভার রানীগঞ্জ বিধানসভায় ভোট বয়কটের ডাক

অবতক খবর,১২ এপ্রিল: আসানসোল লোকসভার রানীগঞ্জ বিধানসভার হরিশপুর গ্রামের গ্রামবাসীরা ভোট বয়কটের ডাক দিয়েছে।
২৭৮ (এসি)র বুথ নম্বর 123/124 এর 1225 জন ভোটার দিলেন না ভোট। 2020 সালে পর পর ধসে গ্রামের বহু কংক্রিটের বাড়ি পড়ে গিয়েছে। তাই পুনর্বাসন না পাওয়া পর্যন্ত তারা নিজেদের দাবিতে অনড়।এর আগেও তারা বিধানসভা ভোট বয়কট করেছিলেন।

ফের ভোট বয়কটের ডাক রানীগঞ্জ বিধানসভা অন্ডালের হরিশপুর গ্রামের বাসিন্দাদের।সালটা ছিল ১৪ ই জুলাই ২০২০। ইসিএলের খোলামুখ খনির বিস্ফোরণের জেরে অন্ডালের হরিশপুর গ্রামে ব্যাপকভাবে ধস দেখা যায় বলে গ্রামবাসীদের অভিযোগ । সেই মুহূর্তে গ্রামবাসীরা ইসিএলের বিভিন্ন দফতরে বিক্ষোভ ও লিখিত অভিযোগ জানাই । এর কিছুদিন পরেই ফের প্রবল ধসে আক্রান্ত হয় পুরো গ্রাম । ভেঙে পড়েন বহু বড় বড় কংক্রিটের বিল্ডিং ।সেই মুহূর্তে আতঙ্কে গ্রাম ছাড়তে শুরু করেন গ্রামের মানুষের একাংশ । ধরনা দেওয়া হয় ইসিএলের বিভিন্ন দপ্তরে । ধসের কারণে গ্রামবাসীরা দু নম্বর জাতীয় সড়কে অবরোধে বসেন । ধস নিয়ে শুরু হয় রাজনৈতিক তরজা । শাসকদল বিরোধী দল সকলেই ধসকবলিত গ্রামবাসীদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছিলেন এমনটাই গ্রামবাসীদের তরফে জানা যায় ।

কিন্তু কেউই কথা রাখেননি তাই গত বিধানসভা ভোটেও এই গ্রামের মানুষেরা ভোট বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন । গত বিধানসভা ভোটে এই গ্রাম থেকে পড়েনি একটা ভোটও এমনটাই গ্রামবাসীরা জানান তারা আরো জানান আমরাও ভারতবাসী ভোট দেওয়ার অধিকার আমাদেরও আছে কিন্তু ধ্বস কবলিত আমাদের গ্রামের পাশে নেই কেউ । তাই কোনো রাজনৈতিক দলকেই আর ভোট নয় । সেজন্যই এবারের উপনির্বাচনে ভোট বয়কটের ডাক গোটা গ্রামের । গ্রামবাসীদের দাবি তাঁদের গ্রাম ধসের কবলে প্রায়ই সমস্তটাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেছে তাই গ্রামের বদলে গ্রাম চাই, বিদ্যালয়ের বদলে বিদ্যালয়,,বাসস্থানের বদলে নিরাপদ বাসস্থান চাই
সামনেই আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচন ঠিক তার আগেই অন্ডাল গ্রামের হরিশপুরে ভোট বয়কটের ডাক । এই ঘটনায় ফের রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা ।