হনুমান পুজো করে ফেরার পথে সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় এর গাড়ি লক্ষ করে চোর,জয় বাংলা স্লোগান তৃণমূলের

অবতক খবর,২০ জানুয়ারি: হনুমান পুজো করে ফেরার পথে সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় এর গাড়ি লক্ষ করে চোর,জয় বাংলা স্লোগান তৃণমূলের। ধনিয়াখালির সাহেব হাটতলা এলাকার ঘটনা।

তৃনমূল কর্মীর দাবি, একশো দিনের টাকা চুরি করেছে ওদের নেতারা তাই চোর স্লোগান তো হবেই। পাল্টা সাংসদ বলেন, রামের কথা বলতে এসেছি সেখানেও গালাগাল দিচ্ছে।

আজ ধনিয়াখালি সাহেব হাটতলা এলাকায় দলীয় কর্মী সমর্থকদের নিয়ে হনুমান পুজো করেন সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়।‌ । পুজো করে লাড্ডু বিতরণ সেরে তার গাড়ি করে ফির ছিলেন।। সেখান থেকে কয়েক মিটার দূরেই তৃণমূল কংগ্রেসের একটি পথসভার প্রস্তুতি হচ্ছিল। সেই রাস্তা দিয়েই লকেট চট্টোপাধ্যায়ের গাড়ি যাবার সময় উপস্থিত তৃণমূল কর্মীরা সাংসদ কে লক্ষ্য করে চোর স্লোগান দেন। পাশাপাশি মাইক নিয়ে জয়বাংলা স্লোগান দিতেও দেখা যায় তাদের। তখন গাড়ির ভিতরেই ছিলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়।। যদিও সাংসদের গাড়ি সেখানে দাঁড়ায় নি।।

ঘটনা প্রসঙ্গে স্থানীয় তৃনমুল কর্মী মানিক নস্কর বলেন,এখানে পুজো করতে এসেছেন ঠিক আছে। কিন্তু এখানে এসে উল্টো পাল্টা কথা বললে হবে না। কেন বললেন না একশো দিনের টাকা , ঘরের টাকা অমিত শাহের ছেলে চুরি করে সব নিয়ে নিয়েছেন,ঐই টাকাটা পেলে আমরা দেবো। চোর স্লোগান তো দেবোই। অমিত শাহের ছেলে জয় শাহ্,শুভেন্দু অধিকারী কি ভালো ? টাকা করে নি। ২০০৯ এ তমলুকে ওত টাকা কোথা থেকে খরচ করলেন ।।ও চুরি করে নি। তখন তো সারদা , নারদার টাকা নিয়েছিলেন। চুরি তো উনি ও করেছিলেন।

ঘটনা প্রসঙ্গে পাল্টা লকেট চট্টোপাধ্যায় বলেন মুখ্যমন্ত্রী রামের বিরুদ্ধে মিছিল করছে, এরা ও রামের বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছে। এই জিনিস বাংলার মানুষ আর মেনে নেবে না। জয় বাংলা বলুক। বিভিন্ন তোলাবাজিতে তাদের নেতারা সব ই জেলে আছে। সবেতে এরা যুক্ত আছে তাই অস্তিত্বের শেষ লড়াই করছে তারা। আমরা রামের কথা বলতে এসেছি আর এরা সেখানে গালি দিচ্ছে ,এটাই তাদের চরিত্র।।

ঘটনা প্রসঙ্গে ধনিয়াখালির বিধায়ক অসীমা পাত্র এ জানান (গ্ৰাফিক্স), যেখানে এসেছিল সেটা এস সি এলাকা। আজকে সেখানে একশো দিনের টাকা বন্ধ, ঘরের টাকা বন্ধ। এবং লকেট চট্টোপাধ্যায় হঠাৎ পাঁচ বছর পর চলে এলেন হনুমান চলিশা পাঠ করতে । তাহলে মানুষ তো বিক্ষোভ দেখাবেই। সে জন্য বিধায়ক কে ন উত্তর দেবে।।