সন্ত্রাসের শিকার হচ্ছে সন্দেশখালীর সাধারণ মানুষ, বিস্ফোরক প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী

অবতক খবর,১৩ ফেব্রুয়ারি: আজ জেলা কংগ্রেস কার্যালয় প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা বহরমপুরের সাংসদ সাংবাদিক বৈঠক করলেন। তিনি সাংবাদিক বৈঠক থেকে প্রথমেই সন্দেশখালিতে কোনো প্রতিনিধ ি দলকে নাক দেয়ার কারণে এবং যেকোনো রাজনৈতিক দলকে যাওয়ার আগেই বাধা দেয়ার কারণে তিনি বলেন এর একটাই কারণ এই বাংলার এক অভূতপূর্ব সন্ত্রাস, যে সন্ত্রাসের শিকার হচ্ছে সন্দেশখালীর সাধারণ মানুষ। তিনি বলেন সত্যি বলতে কি ভাবতে অবাক লাগে আমরা কোথায় বাস করছি। এই বাংলা আজকে বর্গীদের দেশে রূপান্তরিত হচ্ছে।

যেখানে দিদির দলের লোকদের অত্যাচারে মা-বোনদের পণ্য হতে হচ্ছে, যেখানে জলের দলের জমি কিনে নেয়া হয় যদি সেই জমি বিক্রি করতে অস্বীকার করে তাহলে সেই জমিতে নোনা জল ঢুকিয়ে দেয়া হয়। তার সঙ্গে সন্ত্রাস এবং দৈহিক আক্রমণ এবং পুলিশের মিথ্যা কেশ। সব মিলে আজ সন্দেশখালি সারা ভারতবর্ষের এই বাংলার সন্ত্রাসের এক উজ্জ্বলতম এবং নৃশংসতম প্রতিফলন, বলেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

দিনে আরো বলে একদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিঙ্গুর নন্দীগ্রামের জমি আন্দোলন কে কেন্দ্র করে তার বিনিময়ে বাংলার মসনদ দখল করেছিলেন অধীর বলেন আজকে আপনার মনে হচ্ছে না সেদিন তো শিল্পের জন্য জমি অধিগ্রহণ করেছিলে ন, আর আজ তৃণমূল নেতাদের নিজস্ব সম্পত্তি বাড়াবার জন্য এই গরীব মানুষের জমিগুলো কেড়ে নেয়া হচ্ছে তাদের ঘরের মা-বোনদেরকে বর্ণ হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে এবং তাদের দৈহিকভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে সেখানকার মা-বোনেরা প্রকাশ্যে ক্যামেরার সামনে বলছেন তারপরও কি আপনাদের লজ্জা হয় না এই লজ্জা আমরা কোথায় রাখব?১৪৯

Leave a Reply