মদ্য ছাড়া লেখা যায় কি পদ্য? মনে পড়ে শক্তিকে? শক্তি চট্টোপাধ্যায়। ২৫ নভেম্বর, তাঁর জন্মদিন। শক্তি অনেক সত্যি কথা লিখেছিল।

শক্তি কথা- সত্যি কথা
তমাল সাহা

সেদিন মদ্যপান করেছিল কিনা
জানিনা
বড় সত্যি বলেছিল শক্তি —
আমরা কলকাতার মৌমাছি
ধর্মে আছি জিরাফেও আছি
আমাদের দুটোতেই ভক্তি।

শুধু মানুষেরই দুটি শিরদাঁড়া।
একটি ডানে,অন্যটি বাঁয়ে বেঁকে
কখনো থাকে না সোজা- খাড়া।

শক্তি আরো সত্যি বলেছিল
এখন সে সব মনে হয়
সে বড় সুখের সময় নয়।

সে প্রশ্ন তুলেছিল
যেতে পারি কিন্তু কেন যাবো–
মানে দায়িত্ব ছেড়ে কেন পালাবো?

যখন দুয়োর এঁটে ঘুমিয়ে থাকে পাড়া
সে-ই তো গভীর রাতে
গিয়েছিল তাদের বাড়ি,
নেড়েছিল কড়া—
অবনী বাড়ি আছো!
ডেকে ডেকে ফেলে দিয়েছিল সাড়া।

জাগো! জাগতে রহো!
মানুষ ফাঁদ পাতছে…
মানুষ বড় কাঁদছে,
তুমি মানুষ হয়ে পাশে দাঁড়াও—
ঘরে ঘরে ডাক পাঠাও।

আরো বলেছিল,
ভাবছি ঘুরে দাঁড়ানোই ভালো।
আর কতদিন মেনে নেব
আঁধার রাতের কালো।
বিপ্লব চেয়ে ওরা পেয়েছিল গুলি।
ঐ দেখো পড়ে আছে আমার
প্রিয় প্রজন্মের খুলি…

আমরা কী করলাম এতোকাল ধরে!
আমাদেরও দায় আছে।
সে কথা জানাও দুনিয়াকে
খোদাই করে লেখো অক্ষরে।

কলম উঁচিয়ে আমরা তো
একটা মিছিল করতে পারি!
দৃপ্ত পদে পথে দেখো
দীপ্ত কলম-সৈনিক সারি সারি।

সূত্রঃ শক্তি চট্টোপাধ্যায়

1 COMMENT

  1. অসাধারণ, শক্ত হাতে সত্যের প্রতিষ্ঠা হোক ।

Comments are closed.