যারা চুরি করেছে তারা পাপ করেছে, মন্তব্য ফিরহাদ হাকিমের

অবতক খবর,২৯ এপ্রিলঃ বেশ কিছুদিন ধরে জঙ্গিপুরের জেলা কমিটি নিয়ে তৃণমূল নেতাদের মধ্যে শুরু হয়েছিল বিরোধ ,সেই বিরোধ মেটাতে আজ ফিরহাদ হাকিম এক জনসভায় উপস্থিত হন সেখান থেকে তিনি পৌরসভার উন্নয়ন নিয়ে জঙ্গিপুর পৌরসভায় এক পর্যালোচনা বৈঠক করবেন তারপর ভবঘুরেদের আতিথ্য উদ্বোধন করবেন এরপর বিধায়ক ও ব্লক সভাপতিদের নিয়ে এক বৈঠক করেন।

ফিরহাদ হাকিম আজকের সভায় উপস্থিত হয়ে বলেন যারা চুরি করেছে তারা পাপ করেছে। যদি কেউ এক টাকা চুরি করে তাকে পার্টি থেকে বার করে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখের রক্ত তুলে মানুষের সেবায় ব্রত হয়ে এই দল গঠন করেছেন। দিল্লি যখন এক লক্ষ সতের হাজার কোটি টাকা আটকে রেখেছেন তা সত্বেও মমতা বন্দোপাধ্যায় সমস্ত প্রকল্প এবং উন্নয়নের জন্য টাকা পয়সা দিচ্ছেন এর মাঝখানে কোনরকম দালালি চলবেনা বলে জানান ফিরাহাদ হাকিম। তিনি বলেন মিডিয়াতে বারবার চোর চোর বলে দেখানো হচ্ছে কিন্তু বারো হাজার কোটি টাকার চোর টা চোর নয়। পুরো কর্ণাটক বেঁচে দেওয়া চোর টা চোর নয়, অন্য কোন দল কোন অন্যায় করেনি অন্যায় শুধু তৃণমূল করেছে। কারণ তৃণমূল জনগণের পাশে থাকে বলে আজ তাদের গাত্রদাহ ধরেছে।

ফিরহাদ হাকিম বলেন সত্য সেলুকাস কি বিচিত্র এই দেশ হাজার হাজার কোটি টাকা চুরি করে তার চোর বদনাম হয় না আর যারা জনসাধারণের জন্য কাজ করে যাচ্ছে সকাল থেকে টিভি, পেপার সমস্ত সংবাদে চোর চোর করে তৃণমূলের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য তারা নেমে পড়েছে কিন্তু আজ তৃণমূলের সৈনিকরা গ্রামে গ্রামে মানুষের দুঃখ কষ্টে অভাবে পাশে এসে দাঁড়িয়ে তারা কি করে সরকারি সমস্ত সুবিধা ভোগ করবে তার জন্য তাদের জীবনটা ব্যয় করে ফেলছেন।

তিনি সেই সব মিডিয়াদের উদ্দেশ্যে বললেন তৃণমূল কংগ্রেস যে মানুষের উপকারের জন্য তাদের জীবনকে বলিদান দিচ্ছে তাদের কথা তো বলছেন না। তাদের কথা তো উঠাচ্ছেন না তাদের মুখের দিকেও তো তাকাচ্ছেন না শুধু টিভিতে যা দেখাচ্ছে সেটাই দেখবো আর আমার বাড়ির পাশে যে ছেলেটা আমার জন্য সারাদিন প্রাণ দিচ্ছে,সারাদিন কাজ করছে, তাকে দেখবেন না। তিনি আরো বলেন যেখানে এক কোটির পাটি, এক কোটির উপরে সদস্য সারা বাংলায়। তিনি বলেন সংসারে পাঁচটি ভাই থাকলে একটি ভাই সংসারের বদনাম করে দেয় সেরকম এককোটির পার্টিতে ধরলাম হাজার জন চোর চামার নিশ্চিত আছে, তিনি বলেন এক কোটিতে এক হাজার অর্থাৎ .০০১% । তিনি বলেন সেই টাকে টিভিতে বারবার দেখিয়ে এমন বলা হচ্ছে যে সারা বাংলায় সব চোর, চামার আছে। ফিরহাদ হাকিম বলেন একশ্রেণীর মানুষ আছেন কিছু মিডিয়া আছে তারা অন্যের কোন কিছু দেখতে পান না। তারা সব সময় দূরে তাকান তাদের পিছনের দোষগুলো তারা লক্ষ্য করেন না তাদের একটাই কাজ তৃণমূলের দোষ খুঁজে বেড়ানো।

তিনি তাই বলেন আপনারা দোষ খুঁজে বেড়ান আর তৃণমূল মানুষের জন্য বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের অভাব অভিযোগ দেখে পূরণ করুন। এই হচ্ছে তৃণমূল, সর্বদা মানুষের সাথে মানুষের পাশে তৃণমূল। জাকির হোসেন তিনি তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে দলের দোষ ত্রুটি ধরে তুলে বলেন যারা মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর বদনাম করছেন, দিদি সততার প্রতীক, তার কোন দাগ নেই আমরা চুরি করছি, মানুষের পাশে থাকছি না যারা এরকম করবে, তাদেরকে দল থেকে বিতাড়িত করার নিধান দেন বিধায়ক জাকির হোসেন।