ব্রাত্য বসুর নতুন ক্রাইম থ্রিলার গ্যাংস্টার ছবি ‘হুব্বা’ মুক্তি পাবে নতুন বছরে

অবতক খবর,৪ ডিসেম্বর,ফারুক আহমেদ: ব্রাত্য বসুর নতুন ক্রাইম থ্রিলার গ্যাংস্টার ছবি ‘হুব্বা’ মুক্তি পাচ্ছে নতুন বছর ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসে।

ব্রাত্য বসুর নতুন ক্রাইম থ্রিলার গ্যাংস্টার ছবি ‘হুব্বা’র শেষ পর্বের বর্ণময় এবং চ্যালেঞ্জিং শুট্যিং শেষ হল।

ছবিতে নাম ভূমিকায় আছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম। সঙ্গে আছেন ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত। তাছাড়া নতুন একঝাঁক থিয়েটারের ডিসিপ্লিন্ড সম্ভাবনাময় এবং পোড়খাওয়া উদ্দীপক অভিনেতা অভিনেত্রীরা।চিত্রগ্রাহকে আছেন সৌমিক হালদার। সদ্যসমাপ্ত হয়েছে শেষ পর্বের শুট্যিং। ২০২৪ সালে মুক্তি পাওয়ার অপেক্ষায় নতুন বাংলা ছবি ‘হুব্বা’।

পশ্চিমবঙ্গ বাংলা অকাদেমির সভাপতি ব্রাত্য বসু। রাজ্য সরকারের অতি গুরুত্বপূর্ণ উচ্চশিক্ষা এবং শিক্ষা দফতরের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তিনি বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব বিষ্ণু বসুর ছেলে। তিনি প্রেসিডেন্সি কলেজ ও কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা সাহিত্য অধ্যয়ন করার পর কলকাতার সিটি কলেজে অধ্যাপক রূপে যোগ দেন।

গণকৃষ্টি নামে এক থিয়েটার গ্রুপে সাউন্ড অপারেটর হিসেবে তার নাট্যজীবন শুরু হয়েছিল। পরে তিনি দলের জন্য নাটক লিখতে ও পরিচালনা করতে শুরু করেন। ‘আল্ট্রা-মডার্ন’ নাটক অশালীন (১৯৯৬) তার প্রথম নাটক। তার অন্যান্য উল্লেখযোগ্য নাটক গুলি হল অরণ্যদেব, শহরইয়ার, উইঙ্কল টুইঙ্কল ও হত্যারহস্যমূলক নাটক চতুষ্কোণ।

১৯৯৮ সালে তিনি শ্যামল সেন স্মৃতি পুরস্কার ও ২০০০ সালে দিশারী পুরস্কার অর্জন করেন। ২০০৮ সালে তিনি ব্রাত্যজন নামে নিজস্ব একটি থিয়েটার গ্রুপ গঠন করেন। ২০০৯ সালে দেবব্রত বিশ্বাসের জীবন অবলম্বনে নির্মিত নাটক রুদ্ধসংগীত তার অনবদ্য সৃষ্টি।

সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার একটি সর্বভারতীয় সাহিত্য সম্মাননা। জাতীয় সারস্বত প্রতিষ্ঠান সাহিত্য আকাদেমি কর্তৃক অসামান্য সাহিত্যকীর্তির স্বীকৃতিস্বরূপ এই পুরস্কার প্রদত্ত হয়ে আসছে। ২০২১ সালের সাহিত্য অকাদেমি সম্মানে সম্মানিত হলেন শ্রীব্রাত্য বসুু।

‘হুব্বা’ বাংলা ভাষার ভারতীয় থ্রিলার কমেডি চলচ্চিত্র। এটি পরিচালনা করেছেন ব্রাত্য বসু। এই ছবির প্রযোজনা করছেন ফ্রেন্ডস কমিউনিকেশন। পরিচালক ব্রাত্য বসু ও প্রযোজক ফিরদৌসুল হাসান জুটির এটা দ্বিতীয় ছবি। মূখ্য ভূমিকায় হুব্বা চরিত্রে আছেন মোশারফ করিম।

নব্বইয়ের দশকের শেষের দিকে উত্থান ঘটে হুগলির ডন খ্যাত হুব্বা শ্যামল নামে এক গ্যাংস্টারের। তিনি হুগলি জেলার অপরাধজগতের একচ্ছত্র ক্ষমতার অধিকারী ছিলেন। খুন, মাদক, নারী পাচারের বহু অভিযোগে ‘হুব্বা শ্যামলের’ নামে অনেক মামলাও ছিল। অনেকবার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হলেও ঠিকই জামিনে বেরিয়ে যেতেন এই গ্যাংস্টার। এক সময়ে ভোটে দাঁড়াতে চান ‘হুব্বা শ্যামল’। এরপর ২০১১ সালে হঠাৎ তিনি নিখোঁজ হন। পরে হুগলির বৈদ্যবাটির খালে হুব্বা শ্যামলের মৃতদেহ ভেসে ওঠে।

বাংলা চলচ্চিত্রে একটা দাগ কেটে গেলেন ব্রাত্য বসু। তাঁর প্রতিটি কাজই মুগ্ধ করেছে দুই বাংলার দর্শকদেরকে। নতুন চলচ্চিত্র ‘হুব্বা’র মুক্তির অপেক্ষায় দুই বাংলার দর্শকদের মধ্যে বেশ উৎসাহ দেখা দিয়েছে।

ব্রাত্য বসুর ছবি- ‘হুব্বা’র, টিজার রিলিজ হয়েছে।
ট্রেলার লঞ্চ হওয়ার অপেক্ষায়। আর এক মাস পরেই প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে নতুন বছরের নতুন সিনেমা ‘হুব্বা’।