বিশ্ব সেবাশ্রম সঙ্ঘে ধর্ম প্রচারে শারদাপীঠাধীশ্বর জগদগুরু শঙ্করাচার্য স্বামী সদানন্দ সরস্বতী মহারাজ

অবতক খবর,২২ ডিসেম্বর,নববারাকপুর : পূজ্য শ্রীসমীরেশ্বর ব্রহ্মচারীর আমন্ত্রণে বিশ্ব সেবাশ্রম সঙ্ঘে শুক্রবার দুপুরে এসেছিলেন শারদাপীঠাধীশ্বর জগদগুরু শঙ্করাচার্য স্বামী সদানন্দ সরস্বতী মহারাজ ৷ পূর্বসুরী শঙ্করাচার্য স্বরূপানন্দ সরস্বতী মহারাজ দেহ রাখবার পর দ্বারকাধামের শঙ্করাচার্য পদে আসীন হন স্বামী সদানন্দ সরস্বতী মহারাজ ৷ শঙ্করাচার্যপদে আসীন হবার পর এটাই পশ্চিমবঙ্গে এটাই তাঁর প্রথম ধর্মপ্রচার যাত্রা ৷

এইযাত্রায় সর্বপ্রথম তিনি বিশ্বমাতা মন্দির এবং বিশ্ব সেবাশ্রম সঙ্ঘ প্রতিষ্ঠাতা পূজ্য শ্রীসমীরেশ্বর ব্রহ্মচারীর আশ্রমে আসেন ৷ প্রথমেই তিনি পূজ্য শ্রীসমীরেশ্বর ব্রহ্মচারী নির্মিত আদি শঙ্করাচার্যের মূর্তির আবরণ উন্মোচন করেন ৷ তারপর বিশ্বমাতা দক্ষিণা কালীর পূজা ও আরতি করেন ৷ পরিশেষে সুসজ্জিত মঞ্চে শুরু হয় পাদুকা পূজন ৷ জগদগুরু শঙ্করাচার্য স্বামী সদানন্দ সরস্বতী তাঁর আশীর্বচন বলেন… ৷ পশ্চিববঙ্গে এই সফরে তিনি তারাপীঠ, সহ বিভিন্ন মঠে যাবেন নববারাকপুরে বিশ্ব সেবাশ্রম সঙ্ঘে মহারাজ আগমনে দর্শনার্থীদের ঢল নামে। রবিবার ব্রিগেডে লক্ষ কণ্ঠে গীতা পাঠের আসরেও উপস্থিত থাকবেন ৷

শারদাপীঠাধীশ্বর জগদগুরু শঙ্করাচার্য স্বামী সদানন্দ সরস্বতী মহারাজের তৈল চিত্র উপহার তুলে দেন পূজ্য শ্রীসমীরেশ্বর ব্রহ্মচারী ৷ পূজ্য শ্রীসমীরেশ্বর নিজেই শঙ্করাচার্যের তৈলচিত্রটি অঙ্কন করেছেন ৷