প্রশাসনের পক্ষ থেকে ধানের ন্যাড়া পড়ানো নিয়ে বারবার সচেতনতার সত্বেও একশ্রেনীর চাষী সেই সব নিয়মের তোয়াক্কা না করে অবাধে পুড়িয়ে চলছে ধানের ন্যাড়া মন্তেশ্বরে

অবতক খবর,২২ ডিসেম্বর,জ্যোতির্ময় মন্ডল,পূর্ব বর্ধমান: কৃষি দপ্তর ও ব্লক প্রশাসনের পক্ষ থেকে ধানের নাড়া পড়ানো নিয়ে বারবার সচেতনতা সত্ত্বেও একশ্রেণীর চাষী সেইসব নিয়মের তোয়াক্কা না করেই অবাধে পুড়িয়ে চলেছে মাঠে পড়ে থাকা কাটা ধানের অবশিষ্ট অংশ।

কৃষি দপ্তরের পক্ষ থেকে সচেতনতা মূলক কর্মসূচির মাধ্যমে বারবার জানানো হয়েছে ধানের নাড়া পোড়ানোর ফলে জমির মাটির ক্ষতি হয়ে উর্বরতা শক্তি কমে যেতে পারে। তাই তাদের পরামর্শ এই ধানের ন্যাড়া গুলি না পুড়িয়ে জলের প্রয়োজনীয় উপাদান প্রয়োগ করে পচিয়ে সেগুলোকে জমির সার হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। কিন্তু এক শ্রেণীর কৃষক সেগুলিকে গুরুত্ব না দিয়ে জমিতে আগুন লাগেই চলেছে। এছাড়া এখনো মাঠে বিভিন্ন জমিতে ধান পড়ে রয়েছে এই পরিস্থিতিতে পোড়ানোর আগুন হাওয়ায় উড়ে গিয়ে সেই জমির ধানের ক্ষতি হতেও পারে। এ বিষয়ে মানুষকে সচেতন হতে হবে।

আজ সেই রকমই এক চিত্র দেখা গেল মন্তেশ্বর ব্লকের দেনুর এলাকার একশ্রেণীর চাষী নিয়মের তোয়াক্কা না করে মাঠে পড়ে থাকা কাটা ধানের অবশিষ্ট অংশ অবাধে পুড়িয়ে চলছে। এই সব কাজ যারা করছে তাদের চিহ্নিত করে তাদের বিরূদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান মন্তেশ্বরের জয়েন্ট বিডিও সোমনাথ সাউ।