পিছিয়ে পড়া মানুষদের স্বার্থে আশ্বস্তের বস্ত্রদান মেলা

অবতক খবর,৮ অক্টোবর: দুর্গাপুজো আসন্ন প্রায় আর পুজো মানেই নতুন কাপড় জামা কেনার মহা আনন্দ। কিন্তু যে সব বাড়িতে নুন আনতে ফুরোয় পান্তা তারা কি তবে পরবে না নতুন জামাকাপড়! নিশ্চই পড়বে আর তার জন্যেই গত তিন বছরের মতো গয়েশপুর আশ্বস্ত সেচ্ছাসেবক সংস্থা আয়োজন করেছিল তাদের অভিনব বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠান যার নাম “৫ টাকার মেলা” । এই নিয়ে চতুর্থ বছরে পা দিল আশ্বস্ত এর এই ৫ টাকার মেলা। এই অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ হলো এই মেলায় মাত্র পাঁচ টাকার বিনিময়ে দেওয়া হয় নতুন বস্ত্র। অর্থাৎ একটি চারজন সদস্যর পরিবারে মাত্র কুড়ি টাকা খরচ করলেই পেয়ে যাবে পরিবারের প্রতিটি মানুষের জন্যে নতুন বস্ত্র। এছাড়া মেলায় রাখা হয়েছিল স্যানিটারি ন্যাপকিন, খাতা পেন্সিল ইরেজার ও আলু বিরিয়ানীর স্টল।

এছাড়া খুব ভালো মানের পুরোনো বস্ত্র থাকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে । সংস্থার সভাপতি স্বপ্না মজুমদার জানান যে নতুন বস্ত্রের দাম ৫ টাকা করে রাখা হয় যাতে কারোর না মনে হয় আমরা এই পুজোর আগে কাউকে দান দিচ্ছি, বরং তাদের যাতে মনে হয় তারা তাদের নিজেদের উপার্জনের টাকায় পরিবারের সকলের জন্যে কিনে নিচ্ছে নতুন কাপড়। 2020 সালে করোনা কালীন সময়ে শুরু হয়েছিল এই মেলা। মানুষ যখন করোনার কবলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল তখন মানুষের মনে পুজোয় নতুন পোশাক পরিধান করার আনন্দ এনে দিয়েছিল আশ্বস্ত। এই বছরেও প্রচুর মানুষ আনন্দ সহকারে সংগ্রহ করেছে নতুন পোশাক।