অবতক খবর,২৮ জুলাই,বারুইপুর: এখন চায়ের দোকান থেকে রাজ্যের আলিতে গলিতে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু “পার্থ ও অর্পিতা”। যেভাবে তদন্তকারীরা (ইডি) শিক্ষক দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর একের পর এক ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করছে টাকার পাহাড়।

প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও বান্ধবী অর্পিতার পাহাড় সমান সম্পত্তির হদিস পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন জায়গা থেকে। দক্ষিণ 24 পরগনা বারাইপুরের পুঁড়ি গ্রামে একটি সু বিশাল বাগানবাড়ি রয়েছে “পার্থ ও অর্পিতার”। প্রায় সময় এই “বিশ্রামে”সময় কাটাতে আসছো পার্থ ও অর্পিতা। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বড্ড প্রিয় বাগানবাড়ি ছিল এই “বিশ্রাম”। গতকাল যেখানে বেলঘরিয়ার ফ্লাট থেকে উদ্ধার হল ২৮ কোটি টাকা ও প্রচুর সোনা।

বুধবার গভীর রাতে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বারুইপুরের বাগানবাড়ি “বিশ্রামে”দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা ঘটে। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সাধের বাগানবাড়ি চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায় । ইতিমধ্যে ঘটনা স্থলে এসে পৌঁছেছে বারুইপুর থানার পুলিশ। স্থানীয় সূত্রের খবর, বুধবার গভীর রাতে বাগানবাড়িতে হঠাৎ ৩-৪ জন দুষ্কৃতী পাঁচিল টপকে ঘরের সামনে গেটের তালা ভেঙে মালপত্র বের করে একটি পণ্য বাহী গাড়িতে করে নিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা।

যেভাবে প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ অর্পিতার একের পর এক বাড়ি থেকে উদ্ধার হচ্ছে পাহাড় সমান টাকা ও বিপুল সোনা গয়না। বারুইপুরের এই বাগান বাড়িতে বিপুল অঙ্কের টাকা থাকা সম্ভব করেছে।সেই কারনে তদন্তকারীর সংস্থা আধিকারিকদের পৌঁছানোর আগে দুষ্কৃতী হানা “বিশ্রামে”।

সর্বস্ব লুট করে যাওয়ার সময় পাশের একটি বাগানে ফেলে গিয়েছে গ্যাস সিলিন্ডার। অর্থাৎ পাঁচিল টপকে এসে দুষ্কৃতীরা ওই বাগান বাড়ির সমস্ত কিছু লুট করে পণ্যবাহী ট্রাকে তুলছিল। গোটা ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করে দিয়েছে বারুইপুর পুলিশ জেলার পুলিশ ।