অবতক খবর,৩১ ডিসেম্বর: কেউ ভুল বকছেন অর্থাৎ বিজেপি মানেই তৃণমূল।কেউ আবার ত্রিপুরাতে গিয়ে তার গান তাকেই শোনাচ্ছেন,সামনের সারিতে নয় পেছনে বসে আছেন এভাবেই নাম না করে মুকুল রায় এবং বাবুল সুপ্রিয়কে কটাক্ষ বিধায়ক অশোক দিন্দার।

অশোকনগর কচুয়া মোড় সংলগ্ন জয়জয়ন্তী অনুষ্ঠান গৃহে বিজেপির দলীয় অনুষ্ঠানের জন্য পৌরসভার পক্ষ থেকে প্রথমে অনুমতি দেয়া হলেও পরবর্তীতে তা অনুমতি দেয়া হলোনা এদিন বিজেপির বারাসাত সাংগঠনিক জেলার নবনিযুক্ত সভাপতি এবং বিধায়ক অশোক দিন্দা অশোকনগরে এসে বলেন, বিজেপির মিটিং করতে দেওয়া চলবে না পুরো রাজ্যে এটাই চলছে অরাজগতা চলছে,বিজেপির মিটিং আন্দোলন কোন কিছুই করতে দেবে না,বিজেপি কে সংগঠিত করতে দেওয়া হবে না এমনটাই মনোভাব রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল এর।তবে দরকার হলে আমরা পাড়ায়,কারো বাড়ির সামনে,কারো বাড়ির ছাদে মিটিং করব,আমরা সংঘটিত থাকবোই‌।মিটিং আমরা করবোই এমনটাই জানিয়েছেন বিধায়ক অশোক দিন্দা।বিজেপি বিধায়কদের হোয়াসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়া প্রসঙ্গে জানান,অনেকে জয়েন করেছেন, মতুয়াদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রয়েছে।

আমরা সব বিধায়করা বন্ধুর মতো মিশি।আমাদের লক্ষ্য একটাই কিভাবে আগামীতে আমরা ক্ষমতায় আসবো।এই সরকারের পক্ষ থেকে আমাদের আটকানোর চেষ্টা করছে।কয়েকজন বিভিন্ন কারণে তাদের স্বার্থে তারা চলে গেছে তাদের কাউকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।নাম না করেও মুকুল রায় এবং বাবুল সুপ্রিয় কে কটাক্ষ করেন,কেউ ভুল বকছেন অর্থাৎ বিজেপি মানেই তৃণমূল।কেউ আবার ত্রিপুরাতে গিয়ে তার গান তাকেই শোনাচ্ছেন,সামনের সারিতে নয় পেছনে বসে আছেন।তৃনমূল এখনও ভয় পাচ্ছে বিজেপিকে তাই আমাদের স্বাগত জানাচ্ছেন। যদি আমরা বেশি হয়ে যাই তাদের ভয় আমাদের ছাপিয়ে যাবে না তো।তবে আমরা রেডি আছি গত বিধানসভা নির্বাচনে যেভাবে ভোট হয়েছে আমার মত সবাই যদি লড়াই করতো তাহলে আমরা আরো অন্তত 60 আসন বেশি পেতাম।

কারণ অধিকাংশ জায়গায় মারধোর করে বের করে দেয়া হয়েছে আমি যেমন দাঁড়িয়েছিলাম শিরদাঁড়া শক্ত করে তাই অন্য কেউ শিরদাঁড়া শক্ত করে দাঁড়াতে পারতেন তাহলে আমাদের 120 টির বেশি পেতাম।আগামী পৌরসভা ভোটের ফলাফল ভালো হবে যদি কলকাতা পুরসভার ভোটের মত না হয়।পুলিশ গুন্ডা হয়ে কাজ করছে যদি আমরা রুখতে পারি আর যেখানে আমাদের শক্ত সংগঠন রয়েছে আমরা চীনের প্রাচীরের মতো দাঁড়াবো এমনটাই জানিয়েছেন বিধায়ক অশোক দিন্দা।

পাশাপাশি এদিন বারাসাত সাংগঠনিক জেলার বিজেপির সভাপতি তাপস মিত্র জানান,বিজেপি কে ভয় পাচ্ছে কারণ বিজেপি আগামী পৌরসভা নির্বাচনে অশোকনগরে ক্ষমতায় আসবে তাই তাদের সংগঠনকে ভাঙ্গার জন্যই অনুমতি দেয়ার পরেও আবার মিটিং করতে দেয়া হয়নি।যদিও পুরসভার পক্ষ থেকে পুর প্রশাসক উৎপল তালুকদার জানান, অনুমতি দেওয়া হয়েছিল তবে এটি সরকারি অনুষ্ঠান ছিল আগে থেকেই সেটা মাথায় ছিল না তাই বিজেপির অনুষ্ঠানে অনুমতি বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছি। তবে এখানে কোন রাজনীতির ব্যাপার নেই তাছাড়া বিজেপি ক্ষমতায় আসবে না আর একটাও আসন পাবে না।