নববারাকপুর যাত্রিক ক্লাবের শ্যামা পুজোর উদ্বোধন ঘিরে উন্মাদনা

অবতক খবর,১২ নভেম্বর,নববারাকপুর : শনিবার চতুদর্শী রাতেই কালীপুজো ঘিরে নববারাকপুরে বিভিন্ন মন্ডপে মানুষের ঢল নামতে শুরু করেছে।থিমের কারুকার্য অপরূপ মাতৃ প্রতিমাতে এবছরও শনিবার রাতেই উৎসবের আনন্দে ভাসল নববারাকপুর যাত্রিক ক্লাবের ৫৯ তম বর্ষের শ্যামা পুজো।পুজো উদ্যোক্তাদের মধ্যে তৈরি হয়েছে উন্মাদনা।শনিবার রাতে নববারাকপুর যাত্রিক ক্লাবের ৫৯ তম বর্ষের শ্যামা পুজোর মন্ডপে ও মাতৃ প্রতিমার আবরণ উন্মোচন করলেন পুরসভার পুরপ্রধান প্রবীর সাহা।

উপস্থিত ছিলেন উপপুরপ্রধান স্বপ্না বিশ্বাস,থানার ওসি বিজয় কুমার ঘোষ, স্থানীয় পুর প্রতিনিধি শিক্ষিকা শোভা রায়, সমাজসেবী মৃদুলা সাহা সহ পুরসভার একঝাঁক কাউন্সিলর ও মধ্যমগ্রাম ধর্মপ্রিয় ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের মহারাজ ভিমপ্রিয় বিষ্ণু, জ্যোতিপ্রিয় বিষ্ণু, পার্থ বিষ্ণু সহ অনাথ শিশু কিশোররা মঞ্চ আলোকিত করলেন। মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্বলন করে মায়ের চরণে ফুল ছিটিয়ে মাতৃ প্রতিমার দ্বারোদঘাটন করলেন পুরসভার পুরপ্রধান প্রবীর সাহা সহ পুর প্রতিনিধিরা।ধর্মপ্রিয় সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের অনাথ শিশু কিশোর দের প্রীতি উপহার তুলে দেওয়া হয় এদিন। সংঘের সহ সভাপতি অসিত দাস জানান প্রতি বছরের মতো এবছর ও যাত্রিক ক্লাবের সদস্যরা শ্যামা পুজোর আরাধনায় ব্রতী হয়েছে। পুজোর থিম মধুবনী পট চিত্র কে তুলে ধরা হয়েছে মন্ডপ সজ্জায়। প্লাইউড, কুলো পাখা বাংলার শিল্পকলা কারুকার্য মন্ডপে স্থান পেয়েছে।

থিমের মন্ডপের পাশাপাশি রং বেরঙের আলোর কারসাজিতে মোহময়ী হয়ে উঠেছে গোটা এলাকা।পুকুরে ফোয়ারা। আলোর ঝলকানি। থাকছে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান এবং বিসর্জনে মহিলাদের সিঁদুর খেলা। শনিবার সন্ধ্যা থেকে দর্শনার্থীদের ঢল নামে মন্ডপে মন্ডপে।