অবতক খবর,১৯ ডিসেম্বর,নদীয়া:- নদীয়ার গাংনাপুর ঘোলার বাসিন্দা নদিয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার বিজেপি এসি মোর্চার সদ্য পদত্যাগী সভাপতি অমিতোষ বসুর বিরুদ্ধে গাংনাপুর এবং আশেপাশের প্রায় 300 মানুষের অভিযোগ চাকরি এবং অন্যান্য সরকারি সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার নাম করে টাকা আত্মসাৎ এর ।

একসময় তিনি নদীয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার বিজেপি কার্যালয়ের অফিস সম্পাদকের পদেও বহাল ছিলেন । আর সেই কারণে সাধারণ মানুষসহ দলীয় কর্মী সমর্থকদের কাছ থেকেও এ ধরনের প্রতারণা বৃহৎ আকার ধারণ করেছে। এক বিজেপি কর্মী অনেকদিন আগেই লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন গাংনাপুর থানায়। তবে চলতি ডিসেম্বর মাসে প্রথমের দিকে পায়রাডাঙ্গার বাসিন্দা সুভাষ বিশ্বাস আট লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন গাংনাপুর থানায়। আর তারপরেই রাজনৈতিক প্রভাবের ভয়-ভীতি ভেঙে গোটা বিষয়টি জানাজানি হয়। পুলিশ সূত্রে জানা যায় তিনি গত 15 ডিসেম্বর থেকে পলাতক।

এ বিষয়ে বিজেপির জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য মুকুটমণি অধিকারীও স্বীকার করেন তার কানেও এসেছে বিপুল পরিমাণে মানুষের টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগের কথা।
বিজেপি নেতৃত্ব বলেন, যদিও তিনি দলথেকে অব্যাহতি চেয়ে পদত্যাগ জমা করেছিলেন