নদীয়া জেলা তথা সমগ্র বাংলার গর্ব রাম জন্মভূমি আন্দোলনের সহযোদ্ধা বিধান কর

অবতক খবর,১৭ জানুয়ারি: ধানবাদ বিজেপি জেলা কার্যালয়ের তৎকালীন কার্যালয় মন্ত্রী বিধান কর। ধানবাদের রাম জন্মভূমি আন্দোলনে তিনি সরাসরি যুক্ত ছিলেন। তিনি বিজেপি ধানবাদ জেলা কার্যালয়ে থাকাকালীন ধানবাদে ১৯৮৯ সালে রথযাত্রার সময় লাল কৃষ্ণ আদবানির জন্য সাংবাদিক বৈঠকের আয়োজন করেছিলেন।

তার আগে শিলা পুজোর সময় তিনি কল্যাণ সিংয়ের জন্য বিভিন্ন বৈঠক আয়োজন করেছিলেন। সেই সময়ের স্মৃতিচারণা করে বিধান কর বলেন,আজকের এই দিন খুশির দিন। কিন্তু একটা সময় ছিল যখন তিনি এই আন্দোলনের জন্য অযোধ্যাতে পুলিশের লাঠিপেটা খেয়েছিলেন।শুধু তাই নয়, প্রায় মৃত্যুর মুখে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি।

এই আন্দোলনের জন্য গত ৬ ডিসেম্বর ১৯৯২ সালে তিনি এই আন্দোলনে যুক্ত থাকাকালীন তিনি উঁচু একটি মাচা থেকে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হয়েছিলেন। এতটাই আহত হয়েছিলেন যে তাঁকে চেনা যাচ্ছিল না। পরবর্তীতে তার গলার ব্যাজ দেখে তাঁর পরিচয় পাওয়া যায়।

তিনি অযোধ্যার শ্রীরাম হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন এবং হাসপাতালে তাঁকে দেখতে বিজেপির একাধিক শীর্ষ নেতৃত্বরা গিয়েছিলেন। তাঁর নেতৃত্বে বিজেপির বহু কার্যকর্তারা সেই সময় অযোধ্যায় আন্দোলনে সামিল হয়েছিলেন। তিনি হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালীন একাধিক কার্যকর্তারা সেখানে ছিলেন এবং হাসপাতাল থেকে ছুটি পাওয়া পর্যন্ত তাঁর সাথ দিয়েছিলেন।

আগামী ২২শে জানুয়ারি একটি বড় দিন। ওইদিন অযোধ্যার রাম মন্দিরে প্রাণ প্রতিষ্ঠা হতে চলেছে শ্রীরামচন্দ্রের। কিন্তু রাম জন্মভূমি আন্দোলনের সহযোদ্ধা তথা নদীয়া জেলা এবং বাংলার গর্ব বিধান কর।

রাম জন্মভূমি আন্দোলনে তাঁর যে ভূমিকা তা এই অঞ্চলের মানুষ কখনোই ভুলবে না। আগামী ২২শে জানুয়ারি বিধান করের নিজ গৃহে এক বিশাল পূজার্চনার আয়োজন করা হয়েছে। সেখানে উপস্থিত থাকবেন একাধিক নেতৃত্বরা। রাম মন্দিরে প্রাণ প্রতিষ্ঠা নিয়ে তিনি অত্যন্ত খুশি। তিনি বলেন,এটা আমাদের হিন্দুদের জয়।