অবতক খবর,৩ ডিসেম্বর: প্রতিদিনের মত আজও নিজের কাজ সেরে রাস্তা পার করে স্নান করতে যাচ্ছিলেন মনসা মিষ্টান্ন ভান্ডার দীর্ঘদিনের কর্মরত বছর ৬০-এর দিলীপ দাস। জানা যায়, তিনি উত্তর ২৪ পরগণার বাদুড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা।
বহু বছর ধরে মনসা মিষ্টান্ন ভান্ডারে কাজ করেন এই দীলিপবাবু।
প্রতিদিনের মত আজও স্নান করতে গিয়ে পথ দুর্ঘটনায় আহত হন দিলীপ দাস।

রাস্তা পার করার সময় আচমকাই লরিটি গতিবেগ নিয়ন্ত্রণ না করতে পেরে ধাক্কা মারে দিলীপ দাসকে। তার হাতে থাকা বালতির লরিটির কোনায় আটকে যায়। যার ফলে রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন দিলীপ দাস এবং লরিটির সামনের চাকা তার পায়ের উপর দিয়ে চলে যায়। যার ফলে আহত ব্যক্তির বাঁ পায়ের গোড়ালির উপরে গুরুতর চোট পায়।
এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় নগরউখড়া বাজার এবং আহত ব্যক্তিকে তড়িঘড়ি সময় নষ্ট না করে কল্যাণী জহরলাল নেহেরু মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
এই ঘটনার খবর যখন নগরউখড়া থানা-ফাঁড়িতে আসে, সঙ্গে সঙ্গে আধিকারিকরা দেরি না করে ঘটনাস্থলে পৌঁছান এবং এই ঘটনা পরবর্তীতে যেন না হয় তার ফলে রাস্তা যানজটমুক্ত করে দেন।

উল্লেখ্য, আহত ব্যক্তিকে লরি ড্রাইভার নিজেই কল্যাণী হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান। ঘটনার পর লরি ড্রাইভার আহতের সাথেই থাকেন এবং তাকে সর্বতভাবে সহায়তা করেন। শুধু তাই নয়,তিনি পুরোপুরি সুস্থ না হয়ে ওঠা পর্যন্ত তাকে সবরকম সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বাস দেন।

অন্যদিকে লরিটিকে নিয়ে যাওয়া হয় নগরউখরা ফাড়িতে। চালকের মুখে সম্পূর্ণ ঘটনা শুনে প্রশংসা পান পুলিশ আধিকারিকদের কাছে।