অবতক খবর,১৯ ডিসেম্বর,শান্তিপুর,নদীয়া: টেস্ট পরীক্ষায় নকল করতে গিয়ে শিক্ষিকাদের হাতে ধরা পড়ে, সকলের সামনে অপমানিত করায় অ্যাসিড খেয়ে আত্মঘাতী অভিমানী দশম শ্রেণীর ছাত্রী। অভিযুক্ত শিক্ষিকার শাস্তির দাবি পরিবারের।

নদীয়ার শান্তিপুর ব্লকের বেলগড়িয়া দুই নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত নরসিংহ নগর এলাকার সঞ্জিত পালের মেয়ে পাপিয়া পাল এবছরের শরৎকুমারী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। পরিবার সূত্রে জানা যায় বিদ্যালয়য়ে গতকাল টেস্ট পরীক্ষা চলাকালীন, সে নকল করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে শিক্ষিকাদের কাছে। পরিবারের দাবি তাকে, সমস্ত ছাত্রীদের মধ্যে কান ধরে উঠবস করানোর জন্যই অপমানিত হয়েছে সে।

যা নিয়ে অন্যান্য ছাত্রীরা হাসাহাসি করে। আর তাতেই অপমানিত হয়ে বিদ্যালয় থেকে বাড়িতে এসে বাথরুমে গিয়ে অ্যাসিড খায় বলে জানা যায় এর পরেই যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকে এবং পরিবারকে সমস্ত ঘটনা জানাই। পরিবারের পক্ষ থেকে তার চিকিৎসার জন্য তড়িঘড়ি শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে কলকাতায় স্থানান্তর করা হয়।

কলকাতার হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই রাস্তায় গাড়ির মধ্যে মৃত্যু হয় স্কুল ছাত্রীর। তবে এই ঘটনায় শিক্ষিকার শাস্তির দাবি চেয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করবে বলে জানান পরিবার। তবে অভিমানী হয়ে অ্যাসিড খেয়ে ছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে আসে পরিবারসহ গোটা এলাকায়।