অবতক খবর,২৮ জুন,কলকাতাঃ আজ শুভেন্দুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে, রাজভবনে যাবে ব্রাত্য বসুর নেতৃত্বে তৃণমূলের ৮ সদস্যের দল। সম্প্রতি, সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেন বলেছেন, ‘টাকা দিয়েছিলাম শুভেন্দু অধিকারীকে । আর এরপরেই তৃণমূলের তরফ থেকে আক্রমণ শুরু হয়। সাংবাদিক বৈঠক করে এই দাবির ভিত্তিতে শুভেন্দুকে গ্রেফতারের দাবি জানান তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ ও তাপস রায় । তবে এদিন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দুর গ্রেফতারির দাবিতে কী পদক্ষেপ নেবে তৃণমূল, অপেক্ষায় অধিকারী বিরোধীরা।

শুভেন্দু অধিকারীকে গ্রেফতারের দাবিতে আন্দোলনে সুর চড়িয়েছে তৃণমূল। মঙ্গলবার এবার রাজ্যপালের কাছে, শুভেন্দুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে, রাজভবনে যাবে  তৃণমূলের ৮ সদস্যের প্রতিনিধিদল। ব্রাত্য বসুর নেতৃত্বে স্মারকলিপি জমা দেবে তারা। তৃণমূলের প্রতিনিধিদলে রয়েছেন কুণাল ঘোষ, শশী পাঁজা, তাপস রায়, ফিরোজা বিবি, অর্জুন সিং, বিশ্বজিৎ দেব ও সায়নী ঘোষ। সম্প্রতি, সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেন বলেছেন, ‘টাকা দিয়েছিলাম শুভেন্দু অধিকারীকে । চিঠি দিয়ে আদালতকে বিস্তারিত জানিয়েছি। শুভেন্দু অধিকারীর ডাকেই কাঁথিতে গিয়েছিলাম। জমি এবং প্ল্যান স্যাংশনের বিষয় নিয়ে গিয়েছিলাম’, বলে বিস্ফোরক দাবি করেন তিনি। আর এরপরেই তৃণমূলের তরফ থেকে আক্রমণ শুরু হয়। সাংবাদিক বৈঠক করে এই দাবির ভিত্তিতে তদন্ত দাবি করে তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ ও তাপস রায় । এবং নয়, শুভেন্দু অধিকারীকে গ্রেফতারের দাবি তোলেন কুণাল-তাপসরা।

প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই শুভেন্দু অধিকারীর ওপর চাপ বাড়াতে পথে নেমেছে তৃণমূল। সিজিও কমপ্লেক্সের বাইরে থেকে জেলায় জেলায়, এমনকি শুভেন্দুর খাস তালুক বলে পরিচিত কাঁথিতেও বিরোধী দলনেতাকে গ্রেফতারের দাবিতে দাবিতে অবস্থান-বিক্ষোভ করছে তারা। কোচবিহার স্টেশন মোড়ে শুভেন্দু অধিকারীকে গো ব্যাক স্লোগান দেয় তৃণমূল কর্মীরা।