গ্রামের পুকুর থেকে উদ্ধার স্থানীয় এক গৃহবধূর মৃতদেহ

অবতক খবর,১১ অক্টোবর,মালদা:- গ্রামের পুকুর থেকে উদ্ধার স্থানীয় এক গৃহবধূর মৃতদেহ। মৃতদেহ উদ্ধার হতেই ব্যাপক চাঞ্চল্য এলাকায়। গতকাল রাত থেকে নিখোঁজ ছিল এই গৃহবধূ। পরিবারের লোকেরা অনেক খোঁজাখুঁজি করলেও সন্ধান মেলেনি। পুকুরের পাশে জমিতে কাজ করছিল চাষীরা। সেই সময় পুকুরে মৃতদেহ ভাসতে দেখা যায়। মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর থানার অন্তর্গত তেতুলবাড়ী গ্রামের ঘটনা। ওই গ্রামেরই বাসিন্দা তিলিয়া ঋষি (৩৬)। স্বামী দুবা ঋষি এবং দুই সন্তানকে নিয়ে থাকতেন। স্বামী, স্ত্রী দুজনেই দিনমজুরি করতেন। সাধারণ খেটে খাওয়া পরিবার।গতকাল রাত ন’টা থেকে তিলিয়া ঋষি নিখোঁজ হয়ে যান। তার পরিবার এবং প্রতিবেশীরা অনেক খোঁজাখুঁজি করে। এমনকি পার্শ্ববর্তী বিহারেও খোঁজ নেওয়া হয়।কিন্তু সন্ধান মেলেনি।তারপরেই গ্রামেরই পুকুর থেকে উদ্ধার মৃতদেহ। হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। কিন্তু কিভাবে নিখোঁজ হয়ে গেছিল ওই গৃহবধূ? খুন নাকি আত্মহত্যা? ক্রমশ দানা বাঁধছে রহস্য। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যদিও গোটা ঘটনা তদন্ত শুরু করেছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ।