কোজাগরী লক্ষী পূজোয় পদ্ম কুঁড়ির দাম ৫০ টাকা পিস,হাতে ছ্যাঁকা ক্রেতাদের

অবতক খবর,২৮ অক্টোবর,জ্যোতির্ময় মন্ডল,পূর্ব বর্ধমান: আজ কোজাগরী লক্ষী পূজা, লক্ষ্মী দেবী কে ফল মিষ্টি আনাজসহ নৈবদ্য সাজিয়ে দেওয়ার রীতির সঙ্গে পদ্ম ফুলের কুঁড়ি লক্ষ্মী দেবীর হাতে দেওয়ার রীতি রয়েছে ঘরে ঘরে। কিন্তু পুজোর আয়োজন করতে গিয়ে কার্যত্ব নাভিশ্বাস অবস্থা পুজোর উদ্যোক্তাদের। এই

কোজাগরী পুজো দিন মালডাঙ্গা মন্তেশ্বরে বাজারে পদ্মের দিকে হাত বাড়ালেই ছাকা লাগছে ক্রেতাদের ।আজ শনিবার কোজাগরী লক্ষ্মী পূজার দিন মালডাঙ্গা, মন্তেশ্বর বাজার এলাকায় একটি পদ্ম ফুলের কুঁড়ি বিক্রি হচ্ছে ৪০থেকে ৫০ টাকায়। স্বাভাবিক ভাবেই বাজারের চাহিদা মত পদ্মের যোগান কম রয়েছে বলে জানান পদ্ম ফুলের ক্রেতা ও ব্যবসায়ীরা । তাই এই বছর প্রথম পদ্মের দামের পারদ চরল।

অপরদিকে ফুল ব্যবসায়ীদের দাবি মন্তেশ্বর এলাকার বাজারে এবার প্রথম পদ্মের ফুলের দাম আকাশ ছোঁয়া হয়েছে। পদ্মফুল না পেয়েও অনেক ক্রেতাকেই বাড়ি ফিরতে হচ্ছে হতাশ হয়ে। পদ্ম ছাড়া অন্যান্য ফুলের দাম অল্পবৃদ্ধি হওয়ায় স্বস্তি ক্রেতাদের।

ব্যবসায়ী থেকে ক্রেতারা জানান এবছর ভারী বৃষ্টি হওয়াতে পদ্ম গাছ ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে এছাড়া শিশির পড়ার কারনেও ক্ষতি হয়েছে পদ্মের, তার ফলে গাছ ও কুড়ি পচে গেছে। সেই কারণে পুজোর মরশুমে পদ্মের যোগান কমে গিয়েছে। অধিকাংশ ব্যবসায়ী বলেন এবছর প্রথম পদ্মের দাম আকাশ ছোঁয়া হয়েছে। ১০থেকে ১২ টাকার পদ্ম ফুলের মূল্য, সেখানে কোজাগরী লক্ষ্মী পূজায় চারগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। পদ্ম ফুলের কুঁড়ির ক্রেতা বেশি থাকলো সেই তুলনায় জোগান নাই। বিভিন্ন এলাকা বন্যা হওয়াতেও পদ্ম চাষে ক্ষতি হয়েছে স্বাভাবিকভাবেই এইসব কারণেই মূল্যবৃদ্ধি হয়েছে। অন্যান্য ফুলের দাম অবশ্যই স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানান মন্তেশ্বর এলাকার কোন কোন ব্যবসায়ীরা। পদ্ম