অবতক খবর,২১ নভেম্বর: কল্যাণী বই উৎসব এবার ৭ম বর্ষে পদার্পণ করল। অত্যন্ত সাড়ম্বরে এই বই উৎসবের উদ্বোধন হল। এবারের বই উৎসবে একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক দেখা গেল। এবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৪টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর এবং কারা মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস। কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড.মানস সান্যাল, বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক বি এস মহাপাত্র, বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক নিমাই সাহা, হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. তপন বিশ্বাস এবং অঞ্চলের সুপরিচিত বিদগ্ধ শিক্ষাবিদ মহাবীর মুখার্জী ও অধ্যাপক স্মরণ আচার্য। এছাড়াও বহু সমাজকর্মী উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন কল্যাণী পৌর প্রশাসক ও বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. তাপস মন্ডল, উপর পৌর প্রশাসক সুব্রত মাঝি এবং অন্যান্য সুধী ব্যক্তিত্ব।

এদিন প্রদীপ প্রজ্বলন করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কথা সাহিত্যিক নলিনী বেরা। তিনি সুবর্ণরেণু সুবর্ণরেখা উপন্যাসটি লিখে পশ্চিমবঙ্গের অন্যতম বেসরকারি এবং সুপরিচিত আনন্দ পুরস্কার অর্জন করেছেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য অন্যান্য উপন্যাস হলো ভাসান, শবর পুরাণ, মাটির মৃদঙ্গ,ঈশ্বর কবে আসবে। মানুষের জীবন বিধৌত, জনজাতি সম্পর্ক,গ্ৰামীণ বাংলার চালচিত্র, লৌকিক জীবনের সঙ্গে মিথ ও পুরাণ মিলেমিশে একাকার তাঁর লিখন শৈলী।

উৎসব কর্তৃপক্ষ জানান,
বই উৎসবে প্রায় ১০০টি প্রকাশক এবং পুস্তক বিক্রেতারা স্টল করেছেন। এবার বই উৎসবের ভাবনা– সাহিত্যে নদীয়া। উৎসবে লিটিল ম্যাগাজিন স্টল রয়েছে। বিভিন্ন আলোচনা, কবিতা পাঠ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।