তোমার সঙ্গে হাঁটার দিনগুলি এখন অহংকার হয়ে আছে। আজ কবি কমলেশ সেনের মৃত্যুদিন।

কমলেশের চাষ-আবাদ
তমাল সাহা

জমি-জিরেত ছিল কি তোমার?
ধানের কথা লিখেছিলে খুব
মৃত্তিকার গান
কবিতার শেকড়ে শ্রমিষ্ঠ জলদান।

ভাত! ভাত! করে লিখেছিলে ভাতের কবিতা।
ভোর ও গোধুলি বেলায় দেখেছো
আকাশে ফুটে আছে গোলাকার সবিতা।

তুমি নিপাট সাদামাটা মানুষ।
কবিতায় ছিল না কথার ফানুস।
আন্দোলনে ক্রিয়াশীল
দেখিয়েছো স্পর্ধা ও পৌরুষ। জলজীবী-শ্রমজীবীর সঙ্গে তোমার জীবন
শব্দের কারুকাজ কবিতায় নিপুণ বুনন।
আজও দেখি তোমার বিনম্র মুখ
আর মনের ফিতে দিয়ে পরিমাপ করি
কত উদার বিস্তৃত ছিল তোমার বুক।

তোমার ভালোবাসার পেয়েছি ছোঁয়া
জেনেছি জীবন কতদূর করে আসা-যাওয়া।
কমলেশ আশ্চর্য এক নাম
হাতজোড় হয়ে কমলকলি ফোটে
আজও সংরক্ষিত আছে, তোমাকে প্রণাম।