অবতক খবর,খোশবাগ,৩রা জুলাইঃ এ বছর নবাব সিরাজ উদ দৌলার ২৬৬ তম শহীদ দিবস। ১৭৫৭ খ্রিস্টাব্দে পলাশীর যুদ্ধের পর পলায়নরত অবস্থায় তাকে ধরে ফেলে ইংরেজ অনুচররা।

তাঁকে বন্দি অবস্থায় রাজধানী মুর্শিদাবাদের কারাগারে ৩রা জুলাই গভীর রাতে নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয়। বাংলা, বিহার, ওড়িশার শেষ স্বাধীন নবাব সিরাজউদদ্দৌলার সেই মর্মান্তিক পরিণতির কথা আজও বাংলার মানুষ ভুলতে পারেনি। সেই থেকে চলে আসছে বাংলার শেষ স্বাধীনতা শহীদ সিরাজউদ্দৌলার “শাহাদাত দিবস উদযাপন”।

এই দিন প্রাচীন নগরী মুর্শিদাবাদে ভাগীরথীর পশ্চিম পাড়ে খোশবাগে সিরাজের সমাধিক্ষেত্রে ঠিক সকাল দশটায় “মুর্শিদাবাদ হেরিটেজ এন্ড কালচারাল ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি”,”নবাব সিরাজ উদ দৌলা স্মরণ সমিতি”ও মুন লাইট ইনস্টিটিউট পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন, প্রদীপ প্রজ্বলন, মোমবাতি ও ধূপকাঠি জ্বালিয়ে সিরাজের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে। তারপর শুরু হয় সিরাজ স্মরণে বিভিন্ন আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন সাহিত্যিক কাজী আমিনুল ইসলাম, সাংবাদিক সংঘের সভাপতি বিপ্লব বিশ্বাস, হিরাঝিল বাঁচাও আন্দোলনের নেত্রী সমর্পিতা দত্ত, হেরিটেজের সম্পাদক অসিত ভট্টাচার্য সহ প্রচুর কবি ,সাহিত্যিক, সমাজসেবী, সাংবাদিক ও শিক্ষক-শিক্ষিকা। সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মুজিবর রহমান। মুনলাইট ইনস্টিটিউটের ছাত্র-ছাত্রীদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল বেশ মনোগ্রাহী।