অবতক খবর,৬ সেপ্টেম্বর,মালদাঃ— একই সাথে দুই বন্ধুর জলে ডুবে মৃত্যু। বন্ধুদের সাথে টাঙন নদীতে স্নান করতে জলে ডুবে মৃত্যু দুই ছাত্রের। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের হবিবপুর থানার বুলবুলচন্ডী এলাকায়।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে বুধবার দুপুর আনুমানিক ১টা ৩০ মিনিট নাগাদ বেশ কয়েক জন যুবক নদীতে স্নান করতে যায়।হঠাৎ নদীর ঘাট থেকে বেশ কিছুটা নদীর জলের মধ্যে চলে যাই।নদীর ঘাটে স্নান করতে আসা মানুষেরা হঠাৎ দেখতে পাই এক যুবক উপর দিকে হাত করে লাফাচ্ছে কিছু বুঝতে না পেরে ঘাটে থাকা এক মহিলা নিজের শাড়ী খুলে চালিয়ে দেয় ওই যুবকের দিকে যুবকে ওই যুবকে প্রাণে বাঁচায়।ওই যুবক বলে আরো দুই বন্ধু তাদের জলের মধ্যে ডুবে গেছে ইতিমধ্যেই এলাকাবাসী ঘাটে জলে খোঁজাখুঁজি শুরু করে জল থেকে দুই যুবককে উদ্ধার করে বুলবুলচন্ডি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ওই দুই যুবকে চিকিৎসক মৃত্য বলে জানিয়ে দেয়।সেই খবর ছড়াতেই এলাকায় নেমে আছে শোকের ছায়া। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন বেশ কয়েকজন বন্ধু নদীতে স্নান করতে আছে তাদের মধ্যে দুজন জলে ডুবে মৃত্যু হয়েছে। দুই যুবক বুলবুলচন্ডী টাঙন নদীতে স্নান করতে যায় সেই সময় সাঁতার কাটতে না পেরে তলিয়ে যায় গভীর জলে। সেই সময় স্থানীয় বাসিন্দাদের তৎপরতায় ওই দুই যুবক উদ্ধার করে বুলবুলচন্ডী গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত্য বলে ঘোষণা করেন। ঘটনা খবর পেয়ে হবিবপুর থানার পুলিশ ঘটনা স্থলে আসে তদন্ত শুরু করে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে ওই দুই যুবক বুলবুলচন্ডী অঞ্চলে বাসিন্দা,ওই দুই জন বুলবুলচন্ডি হাইস্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্র একজনের নাম মৃত্যু ছাত্রের নাম সন্দীপ গুপ্ত (১৬) পিতা গনপতি গুপ্ত বাড়ি বুলবুলচন্ডী অঞ্চলের চন্ডিপাড়া এলাকায়,অপর জন ক্রিস সাহা(১৬) পিতা উমেস সাহা বাড়ি মিলপারা।মৃতদেহটি বুলবুলচন্ডী হাসপাতাল থেকে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হবিবপুর থানার পুলিশ।