আলিঙ্গনে যাই/তমাল সাহা

আজ হাগ ডে। হাগ বিদেশি শব্দ। আসলে মানুষ কাছাকাছি হতে চায়। হাগ অর্থাৎ এমব্রেস। চলো আমরা আলিঙ্গনে যাই…

আলিঙ্গনে যাই
তমাল সাহা

কাল হাগ ডে
জানাতেই তুমি বললে
শব্দটা আমার পছন্দ নয়।
শব্দ অসম হলে হৃদয়
দূরে চলে যায়।

সুন্দর বললে তুমি।
আমি তোমার মুখের
দিকে তাকিয়ে
অন্য ছায়াপাত দেখি।
আমাদের হাগ সরে গিয়ে
আলিঙ্গনে দাঁড়ায়।

আলিঙ্গন আর কিছু নয়
—উষ্ণতা।
ক্রমে ক্রমে উষ্ণতর হয়।
মানুষ মানুষী
দেহ মনে খু্ঁজে পায়
এক অনাস্বাদিত,
অনুচ্চারিত শুদ্ধজয়।

আলিঙ্গন বাড়াও,
সে ব্যাপক থেকে
ব্যাপকতর হতে চায়।
আলিঙ্গন বাড়াও
সে বৃহৎ থেকে
মহৎ হতে চায়।

গাছ ও হাওয়ার আলিঙ্গন
কে দেখতে পায়?
নদী প্রবল আলিঙ্গনে
সমুদ্রে ছুটে যায়
সূর্যের বিশাল আলিঙ্গন
বিস্তৃত হয়ে পৃথিবীতে ছড়ায়
জ‍্যোৎস্নার আলিঙ্গনে
রাতের ফুলগুলি ফোটে
পুরুষের আলিঙ্গনে
নারী রমণী হয়ে ওঠে
শিশুর আলিঙ্গনে
রমণী জননীর মাত্রা পায়।
চলো,আলিঙ্গনে যাই
যাপিত জীবন কাটুক —
মুগ্ধতায়।

দুটি হাত
যতদূর পারো বিস্তৃত করো,
বোধিবৃক্ষের মতো ছড়াও।
তৃষাতুর বড়—
মানুষ শুধু কাছে নয়,
আরও আরও নিকট খোঁজে।
তোমাকে পেতে চায় অতি
সহজে।

সে চায় না,সে কিছু হারায়
আলিঙ্গনে লুকিয়ে মুখ
সে আশ্রয়-নীড় খুঁজে পায়।

সে আরও আরও বৃহত্তম
আলিঙ্গনে যেতে চায়…

চলো, প্রিয় মানুষ! আলিঙ্গনে যাই