অবতক খবর,৪ জুলাই: আরিয়াদহে ছেলে ও মাকে মারধরের ঘটনায় অবশেষে মূল অভিযুক্ত জায়েন্ট সিং কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এবার এই ঘটনায় চাঞ্চল্যকর দাবি করলেন ব্যারাকপুরের প্রাক্তন সাংসদ অর্জুন সিং।

এদিন তিনি নিজের বাস ভবনে বসে অভিযোগ করেন যে মা ও ছেলে সায়নদীপ পাঁজা কে মারধর সহ একাধিক দুষ্কৃতী মুলক কাজকর্মের মূল অভিযুক্ত জায়েন্ট সিং আসলে মদন মিত্রের ভীষণ ঘনিষ্ট ব্যক্তি। এখন চাপে পরে মদন মিত্র যতই অস্বীকার করুন যে ছবি গুলো মিডিয়াতে দেখানো হচ্ছে কোনটা মিথ্যে নয়। জায়েন্ট সিং এর বাড়বাড়ন্ত মদন মিত্রের জন্য হয়েছে।

এর আগেও যে জায়েন্ট সিং গ্রেপ্তার হয়েছিল সেবার মদন মিত্রের বাড়ি থেকে জেলে ওর জন্য খাওয়ার যেত। এখন সাংসদ সৌগত রায়ের নামে ভেরালে হবে না।” প্রসঙ্গত আরিয়াদহের বাসিন্দা ছাত্র সায়নদীপ ও তার এক বন্ধুর ওপর চড়াও হওয়ার অভিযোগ উঠেছে এলাকার দুষ্কৃতী জায়েন্ট সিং এর বিরুদ্ধে।

আরো অভিযোগ যে সেই সময় নিজের ছেলেকে বাঁচাতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসে তখন তাকেও বেধড়ক মারধর করে ওই দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনায় আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে। এই ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে মূল অভিযুক্তকে আড়াল করার অভিযোগ এনে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন এলাকার মানুষ।

সেই ঘটনায় অভিযুক্ত জায়েন্ট সিং এর মদন মিত্র ও তার পুত্র বধুর কিছু ছবি ভাইরাল হওয়ার প্রেক্ষিতে মদন মিত্র স্পষ্ট জানিয়ে দেন যে তিনি অনেকের সাথে ছবি তোলেন কিন্তু কাউকে ব্যক্তিগত ভাবে চেনেন না। আর তার দাবি ছিল তিনি জায়েন্ট সিং কেও চেনেন না।