অনাদরে অবহেলিত ঘন্টাঘরের সংস্কার করে ঘন্টা চালু করার উদ্যোগ নিলেন মুর্শিদাবাদ পৌরসভার পৌর পিতা ইন্দ্রজিৎ ধর

অবতক খবর,২১ ডিসেম্বর: অনাদরে অবহেলিত ঘন্টাঘরের সংস্কার করে ঘন্টা চালু করার উদ্যোগ নিলেন মুর্শিদাবাদ পৌরসভার পৌর পিতা ইন্দ্রজিৎ ধর।

অবহেলায় পড়েছিল লালবাগ দক্ষিণ দরজার সামনে ঘন্টা।পূর্বে এই ঘন্টা রক্ষণাবেক্ষণের জন্য লোক ছিল কিন্তু এখন আর সে ঘন্টা বাজানো হয় না অর্থাৎ বাজানোর মত পরিস্থিতি নাই। দক্ষিণ দরজা ভিতরে প্রবেশ করলেই দক্ষিণ দিকে অবস্থিত ছিল এই ঘন্টা। যে ঘন্টা দক্ষিণ দরজার ঘণ্টা হিসাবেই মানুষ জানতো কিন্তু বেশ কয়েক দশক ধরে এই ঘন্টা ইতিহাসের সাক্ষী বহন করে দাঁড়িয়ে আছে। বর্তমানে মুর্শিদাবাদ পৌরসভার পৌরপিতা ইন্দ্রজিৎ ধর তিনি পৌরসভার দায়িত্ব গ্রহণ করেই এই দক্ষিণ দরজার ঐতিহাসিক ঘণ্টাকে সংস্কার করে তুলেন। জানা যায় নবাব নাজিমের ফোর্থ সন আলিজা এই ঘন্টা তৈরি করেছিলেন। প্রতি ঘন্টায় ঘড়ি দেখে এই ঘন্টা বাজানো হতো। দীর্ঘ বছর ধরে অনাদরে পড়েছিল মুর্শিদাবাদ শহরের এই ঐতিহাসিক ঘন্টা কেউ এর আগে এই ঘন্টা চালু করার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি, বর্তমান পৌরসভার পৌরপিতা তিনি দায়িত্বভার গ্রহণ করার পরেই এই ঘন্টার চালু করার জন্য সংস্কারের কাজে হাত দেন। বাংলা বিহার উড়িষ্যার নবাব নাজিম হুমায়ুন জা র রাজত্বকালে এই স্তম্ভ ঘন্টা নির্মিত হয় ।এর আওয়াজ অনেক দূর থেকে শোনা যায়। তখন এই স্তম্ভ ঘড়িটি নকশা প্রস্তুত করেছিলেন সাগর মিস্ত্রি । বর্তমানে মুর্শিদাবাদ পৌরসভার পৌরপিতা এই ঘড়িঘন্টা কে সেই একইভাবে রেখে নকশা তৈরি করে চালু করার উদ্যোগ নিয়েছেন। এ বিষয়ে এখানকার বাসিন্দা ছোটে নবাব কি বললেন আসুন শোনা যাক।